moher-jal-naki-mayar-review-myo
moher-jal-naki-mayar-review-myo

Mohomaya:

শুক্রবার থেকে হৈ চৈ প্ল্যাটফর্মে দেখা যাচ্ছে মোহমায়ার(Mohomaya) দ্বিতীয় season। এসেছে মোট পাঁচটি এপিসোড। আগের season এর ধীর গতির প্লট সরিয়ে দ্রুত গতিতে এগিয়েছে ঘটনা প্রবাহ। dark series হিসেবে পরপর হয়েছে খুন। এবারেও ছিল কিছু flashback, ঋষির ছোটো বেলার ঘটনার, আর মাঝে মাঝেই সেখানে দেখা গেছে ঋষির মাকে (অনন্যা চ্যাটার্জি)। গত season-এ অনন্যার অভিনয় যতোটা মন কেড়েছিল এবার তা একঘেয়ে লেগেছে।

অরুণার (স্বস্তিকা মুখার্জি) সাথে ঋষির সম্পর্ক যতো এগিয়েছে, আস্তে আস্তে নিজের মা মুছে গেছে মাথা থেকে। অনন্যার একই শাড়ি একই make up, একই কথার ধরণ সিরিজের মধ্যে একটা monotony তৈরি করে।অরুণা হিসেবে স্বস্তিকার অভিনয় এককথায় দারুণ। তার অভিনয়ের সাবলীলতা আগের episode গুলোতেও ছিল এবার তা আরও বেশি করে ফুটে উঠেছে।বিপুল ঋষির চরিত্রে আগের থেকে সাবলীল তবে চোখের চাহনিতেই বারবার ধরা হয়েছে তার aggression। ঋষির চরিত্রে বেশ কিছু খামতি দেখা যায়, insomnia থাকা কোনো মানুষ এতটা শান্ত হতে পারে না, তার মধ্যে একটা উত্তেজনার অভাব বোঝা যায়।

খুন করার পরেও তার satisfaction বোঝানোর জন্যে শুধু মাত্র চোখের closeup নেওয়া হয়েছে। সুজন মুখোপাধ্যায় শুধুই এক অসহায় বাবা হিসেবে থেকে গেছেন। তাঁর খুনের দৃশ্যটি বেশ অস্বাভাবিক। ঋষির ছোটোবেলা থেকে মোট পাঁচটি খুন ও একটা 2টো খুনের চেষ্টার পরেও কোথাও কারোর কিচ্ছু বুঝতে না পারা, বা প্রমান না থাকাটাও একটু অদ্ভুত লাগতে পারে। ঋষির মায়ের সাথে অরুণার জোর করে কিছু সাদৃশ্য তৈরি করা হয়েছে, একই রকম ডায়লগ দিয়ে।

BGM এর অতিরিক্ত ব্যবহার কোনো কোনো ক্ষেত্রে খুব অপ্রয়োজনীয়। তবে মিঠির makeup এবং অভিনয়কে আলাদা নাম্বার দিতেই হবে। হৈ চৈ এবং কমলেশ্বর মুখার্জীর থেকে আশা ছিল অনেক, হয়তো সেই জন্যেই সবটা পূরণ হল না। psychological thriller হিসেবে নয় মোহমায়া(Mohomaya) দেখা যেতে পারে একটি dark Web series হিসেবে। তবে শেষ দৃশ্যে আবার একটু আগুন উস্কে দেয়। এই কি শেষ? নাকি মিকির প্রত্যাবর্তন আর মিকি-ঋষির মুখোমুখি হওয়ায় তৈরি হবে নতুন একটি season। সব শেষে O.M. Opinion মোহমায়া(Mohomaya) হল 70% OP, এবং 56% OK।

Follow us on FacebookTwitter

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here